বিএনপির কারণে দেশে কেউ নিরাপদ নয়: হাছান মাহামুদ

768

বিএনপির কারণে দেশের কোনও মানুষ নিরাপদ নয় বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপনারা (বিএনপি) পেট্রোল বোমা বাহিনী পালন করবেন এবং পেট্রোল বোমার রাজনীতি করবেন, হত্যাকাণ্ডের রাজনীতি করবেন, আবার বলবেন দেশে কেউ নিরাপদ নয়। আপনাদের কারণেই দেশের মানুষ নিরাপত্তাহীন। আপনাদের কারণে দেশের মানুষের নিরাপত্তা দেয়া কঠিন।’

বৃহস্পতিবার (১৩ মে) ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগের সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে বিভিন্ন সংগঠনগুলোর মাঝে ঈদ উপহার ও করোনাপ্রতিরোধ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘গতকাল ইলিয়াস আলীর পরিবারের সঙ্গে দেখা করে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেব বলছেন, “এ দেশে কেউ নিরাপদ নয়”। ইলিয়াস আলী কিভাবে ঘুম হয়েছে এটা তো মির্জা আব্বাস জানিয়ে দিয়েছেন। ইলিয়াস আলীকে বিএনপির নেতারাই গুম করেছে, এই সত্য কথাটা বলার জন্য মির্জা আব্বাসকে আবার শোকজ করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘যে বিএনপি ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালায়, দেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে হত্যা করার উদ্দেশ্য। ২১ আগস্ট প্রকাশ্য দিবালোকে বিরোধী দলীয় নেত্রী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতির জনসভায় হামলা চালিয়ে ২৪ জন মানুষকে হত্যা করে। এই বিএনপি বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডের বিচার বন্ধ করে। বিএনপির আমলে আহসানুল্লাহ মাস্টার, কিবরিয়া সাহেবসহ, খুলনার মনজুরুল ইমাম সাহেবসহ প্রকাশ্য দিবালোকে এ ধরনের হত্যাকাণ্ড হয়।’

মন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সমাবেশ হামলা চালায়, তাদের কারণে বাংলাদেশের কেউ নিরাপদ নয়। যে বিএনপির কাছে ঘুমন্ত ট্রাক ড্রাইভার নিরাপদ নয়, যে বিএনপির কাছে স্কুলগামী ছাত্র-ছাত্রী নিরাপদ নয়, তাদের উপর পেট্রোল বোমা হামলা হয়। বিএনপির পেট্রোল বোমা হামলায় অন্তঃসত্ত্বা মহিলা হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়। যে দেশে বিএনপির পেট্রোল বোমার কারণে বিশ্ব ইজতেমাফেরত মুসল্লি হত্যার শিকার হয়, সে দেশে তো মানুষের নিরাপত্তা দেয়া কঠিন।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেবকে আমি অনুরোধ জানাবো, এসব কথা বলার আগে আয়নায় নিজেদের চেহারা দেখুন।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগের রাজনীতি হচ্ছে জনগণের জন্য। আর বিএনপির রাজনীতি হচ্ছে নিজেদের দুর্নীতিগ্রস্ত নেতানেত্রীদের রক্ষা করার জন্য। বিএনপির রাজনীতি খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য আর তারেক জিয়ার শাস্তির মধ্যেই আবর্তিত।’

আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তৃতা করেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল, মুক্তিযোদ্ধাবিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. মৃণাল কান্তি দাস প্রমুখ।

উপস্থিত ছিলেন ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপ-কমিটির সদস্যদের আখলাকুর রহমান মাইনু, ডা. হেদায়াতুল ইসলাম বাদল, ইদ্রিছ আহমেদ মল্লিক, ইঞ্জিনিয়ার আবুল কাশেম সীমান্ত প্রমুখ।বাংলাদেশের মাদারীপুর জেলার পুলিশ বলছে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া থেকে মাদারীপুরের বাংলাবাজারের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়া দুটি ফেরিতে প্রচণ্ড ভিড় আর গরমে হিট স্ট্রোক আক্রান্ত হয়ে অন্তত ১৫ জন গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ার পর তাদের মধ্যে ৫ জন মারা গেছে।

“আমরা অসুস্থ অবস্থায় তাদের ফেরি থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসক তিন জন পুরুষসহ মোট ৫ জনকে এ পর্যন্ত মৃত ঘোষণা করেছেন,” বিবিসি বাংলাকে বলেন মাদারীপুরের পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল।

তবে স্থানীয়রা বলছেন খাজা এনায়েতপুরি ও শাহপরান নামের দুটি ফেরি থেকে যাত্রীদের নামার সময় এ ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে এনায়েতপুরির চারজন যাত্রী ও শাহ পরানের ১ জন নিহত হয়েছেন।

পুলিশ সুপার অবশ্য জানিয়েছেন যে ফেরি মাঝ নদীতে থাকার সময় গরমে ও ভিড়ের কারণে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়েন। কিন্তু নদীতে থাকার কারণে তাদের কোন চিকিৎসা বা অন্য কোন ব্যবস্থা করা যায়নি।জেলের বাইরে খালেদা জিয়া এটাই মানবিকতা দেখাছি।দেশের বাইরে যেতে দিয়ে দেশে রাজাকার বারাতে চাই না। খালেদা জিয়াকে যে বাংলাদেশ চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে এটা নিয়েই সন্তুষ্ট থাকা উচিত বিএনপির।খালেদা জিয়া এখন আসামি তাকে কনো রকম দেশের বাইরে যেতে দেওয়া হবে না। দেশের বাইরে আমরা চিকিৎসা নিবো বিএনপি কে যেতে দেবো না।বিএনপি একটা রাজাকার দল।