গার্লফ্রেন্ডের জন্য শাড়ী চুরি করতে গিয়ে ছাত্রলীগের নেতা আটক

1099

১৫ মে শনিবার ঢাকার একটা দোকান থেকে গার্লফ্রেন্ডের জন্য শাড়ী চুরি করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা খেলেন এক ছাত্রলীগের নেতা। তিনি বলেন শাড়ি টা আমার গার্লফ্রেন্ডকে দেওয়ার জন্য কিনতে চেয়েছিলাম।

নাম বাবলু মিয়া বয়স ২৭ জেলে বাগেরহাট থানা মহেশপুর বাবার নাম রতন আলী ২০১৭ সালে তিনি ছাত্রলীগের পদ পান। শুনা যাই এর আগে তিনি কম বেশ চুরি করতেন কিন্তু কখনো ধরা খাই নাই।দোকানদার তারে বেশ কিছুদিন ধরে নজরে রাখতে রাখতে আজ হাতেনাতে ধরা খান।

ধরা খাইয়ার পর বাবলু মিয়া বলেন তার গার্লফ্রেন্ড এর জন্য শাড়িটা চুরি করছে। তার গার্লফ্রেন্ডর নাম নেহা বাসা বরিশাল। বাগেরহাট থেকে বরিশাল সম্পর্ক গড়ে দোলেন এই ছাত্রলীগের নেতা। এর আগে বেশ কিছু রিলেশন করেন এই ছাত্রলীগের নেতা।

এবার গার্লফ্রেন্ড কে খুশি করতে দামি শাড়ি গিফট করতে চেয়েছিলেন বাবলু মিয়া। দোকানতার ধরার পর কাছাকাছি একটি পুলিশ কর্মকর্তার হাতে উঠাই দেন। পুলিশ জানান বাবলু মিয়া ছাত্রলীগের নেতা।তার বিরুদ্ধে আগে থেকে কিছু অভিযোগ ছিলো

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত চলমান ‘সর্বাত্মক লকডাউনের’ মেয়াদ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হচ্ছে। ফলে আগামী ২৩ মে পর্যন্ত জারি থাকতে পারে এই কঠোর বিধিনিষেধ।

শনিবার (১৫ মে) জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। রবিবার (১৬ মে) এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে বলেও জানান তিনি।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী জানান, সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে চলমান বিধিনিষেধ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। আগামীকাল এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে। সেক্ষেত্রে এখন যেসব বিধিনিষেধ চলছে সেগুলোই আগামী এক সপ্তাহ জারি থাকবে।

এরা আগে দেশে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় গত ৫ এপ্রিল কঠোর বিধিনিষেধ জারি করে সরকার। কিন্তু সেটি নান কারণে ফলপ্রসূ হয়নি। পরে গত ১৪ এপ্রিল থেকে আটদিনের ‘সর্বাত্মক লকডাউন’ জারি করা হয়। যা পরবর্তীতে তিন দফায় বাড়ানো হয়। সর্বশেষ ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ১৬ মে লকডাউনের মেয়াদ শেষ হবার কথা থাকলেও এখন তা আরও এক সপ্তাহ বাড়ছে।

পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায়ের পর বর্বর ইসরায়েলিদের হাতে নির্যাতিত ফিলিস্তিনবাসীর জন্য শান্তি কামনা করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।
শুক্রবার (১৪ মে) সকাল ৯টায় জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশন সংলগ্ন গেটে ঈদের তৃতীয় জামাতে অংশগ্রহণের পর সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘ফিলিস্তিনে মুসলমানদের ওপর, ফিলিস্তিনবাসীর ওপর পবিত্র ঈদের পূর্ব মুহূর্তে আক্রমণ হয়েছে। এর তীব্র নিন্দা জানাই। একই সাথে আজকে ঈদের দিনে মহান আল্লাহর কাছে প্রার্থনা, ফিলিস্তিনে যাতে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘ঈদের দিনে মহান আল্লাহর কাছে প্রার্থনা- বাংলাদেশ থেকে, পুরো পৃথিবী থেকে যেন করোনা চলে যায়। আজকে ঈদের দিনে মহান আল্লাহর কাছে, স্রষ্টার কাছে প্রার্থনা আমাদের দেশে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যে সমৃদ্ধি, যে উন্নয়ন অর্জিত হচ্ছে, সেটা যেন আব্যহত থাকে।’
মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের সব মানুষের জীবনে সুখ-শান্তি, সমৃদ্ধি বয়ে আনুক ঈদ, এটাই হচ্ছে আজকে পবিত্র দিনে আল্লাহর কাছে প্রার্থনা।’

চ্যানেল উগান্ডা

বাগেরহাট প্রতিবেদন সাংবাদিক (ডন ভাই)