এবার তামিমার পালা শেষ নাসিরের চোখ এবার অপুর দিকে

461

অনেক দিন পর ক্যামেরার সামনে দাঁড়ালেন অপু বিশ্বাস। তাকে নির্দেশনা দিয়েছেন সৈকত নাসির। সিনেমা নয়, বিজ্ঞাপনের শুটিং করলেন তারা।

করোনার প্রকোপ নিয়ন্ত্রণে না আসায় ঝুঁকি নিতে চান না অপু। মা ও সন্তানের কথা ভেবে বেশ কিছু প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন বলে জানান সম্প্রতি।

মঙ্গলবার শুটিংয়ে ফেরেন এক সময়ের নিয়মিত নায়িকা। তবে কোনো স্পটে নয়, নিজের বাসাতেই জনসচেতনতামূলক একটি বিজ্ঞাপনের শুটিং করেছেন।

এ নিয়ে অপু বিশ্বাস গণমাধ্যমকে বলেন, “ছোট্ট একটি ইউনিট নিয়ে পরিচালক আমার বাসায় এসেছিলেন। সতর্কতার সঙ্গে শুটিং করেছি। যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখার। হাতে স্যানিটাইজার দিয়েছি একটু পরপর। ক্যামেরা চলার সময়টুকু ছাড়া সবাই মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাভস ব্যবহার করেছি।”

নির্মাতা বলেন, “বিজ্ঞাপনচিত্রটিতে অপু দিদির মতো কাউকেই লাগত। প্রস্তাব দিলে শর্ত জুড়ে দেন তার বাসাতেই শুটিং করতে হবে। মেনে নিলাম। তবে আসার সময় ঈদ সালামি নিয়েছি।”

গত কয়েক বছরে বেশ কিছু সিনেমার সঙ্গে অপুর নাম জড়ালেও শুধু দেবাশীষ বিশ্বাসে ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ ২’ ছবিতে অভিনয় করেছেন। এ সিনেমায় তার নায়ক বাপ্পী চৌধুরী।মে’য়ের ছোট বেলার আপদার মেটাতে বা’বা মাহিন্দ্র সিং মেয়ে রিনাকে হেলি’কপ্টারে শ্বশুর বাড়িতে পাঠালেন। ভারতের রাজস্থান রাজ্যের ঝুনঝুনু গ্রামের এই ভদ্র’লোক পেশায় কৃষক। বিয়ের কিছুদিন আগে মেয়ের ছোট বেলার বিমানে চড়ার বিষয়টি মাহিন্দ্রর মাথায় ব্যাপারটা ঘুরপাক খাচ্ছিল।

তিনি পরিকল্পনা করেন বিয়ের দিনই মেয়ের স্বপ্ন পূরণ করবেন। মেয়েকে হেলি’কপ্টারে শ্বশুর বাড়ি পাঠাবেন। এরপর তিনি গোপনে হেলিকপ্টার ভাড়া করেন। স্থানীয় প্রশাসনের কাছ থেকে উড্ডয়নের অনুমতিও নেন।

বিয়ের দিন যখন বাড়ির পাশে খোলা জায়গায় হেলিকপ্টার এসে নামে তখন রিনা বিস্মিত চোখে বাবার দিকে তাকিয়ে দেখেন- তিনি মুখ টিপে হাসছেন! ততক্ষণে মেয়ের চোখে নেমেছে আনন্দঅশ্রু।

যথারীতি বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে নতুন বর-বধূকে নিয়ে হেলি’কপ্টার গন্তব্যে রওনা হয়ে যায়। মেয়েকে বিদায় দিয়ে মাহিন্দ্র সিং বেদনায় ভারাক্রান্ত হলেও মনটা তার আনন্দে ভরে ওঠে। ভাবতে থাকেন জীবনের শেষ সঞ্চয় দিয়ে হলেও মেয়ের আশা তিনি পূরণ করতে পেরেছেন। মাহিন্দ্রর আর্থিক অবস্থা ততটা স্বচ্ছল না হলেও বাবা হিসেবে তিনি যা করেছেন এলাকায় সাড়া পড়ে গেছে। প্রশংসার বৃষ্টিতে ভিজছেন তিনি।