কুমিল্লায় হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে মা ও ছেলের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ

1055

কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার হেসাখাল ইউনিয়নের হেসাখাল দক্ষিণ দায়েমছাতির মৃত হরি মোহন দাস ও জোসনা রাণী দাসের ২য় মেয়ে বাবলী রাণী দাস ও তার একমাত্র পুত্র সন্তান বাঁধন গোছ গত ২৪ মে কুমিল্লা বিজ্ঞ নোটারী পাবলিকের কার্যালয়ে এফিডেভিট মূলে তার নিজ ধর্ম হিন্দু (সনাতন) ত্যাগ করে নওমুসলিম হয়েছেন।

বাবলি রাণী দাস নামের পরিবর্তে নাম রাখা হয় ফাতেমা আক্তার, ছেলে বাঁধন গোছের পরিবর্তে রাখা হয় মোঃ নুরুননবী। বর্তমানে মা ও ছেলে লাকসাম উপজেলার একটি আশ্রায়ণ প্রকল্পে বসবাস করছে।

নওমুসলিম ফাতেমা আক্তার একান্ত সাক্ষাৎকারে সিএন নিউজ টোয়েন্টিফোর’কে বলেন, আমি একজন সনাতন হিন্দু ধর্মালম্বী ছিলাম, বর্তমানে স্বামীর সাথে আমার কোন সম্পর্ক নেই। আমি দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন মুসলমানের সংস্পর্শে এসে ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে জানতে পারি। এছাড়াও বিভিন্ন গ্রন্থে ও হুজুর মাওলানাদের ওয়াজ শুনে বুঝতে পারি ইসলাম পৃথিবীর একমাত্র শান্তির ধর্ম। তিনি আরও বলেন ইসলাম ধর্মই পৃথিবীর একমাত্র সেরা ধর্ম এবং ইসলাম ধর্মই পারে মানুষকে পরকালে মুক্তির সন্ধান দিতে। আমি সাবালিকা বিধায় আমি আমার যাবতীয় ভালো মন্দ বুঝতে পেরে আমি এবং আমার একমাত্র সন্তান এক মুসলিম আলেমের নিকট গিয়ে হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে কালেমা পড়ে মহাপবিত্র ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করি। উক্ত ধর্ম গ্রহণে কেউ আমাকে প্ররোচিত করেনি, আমি বাকি জীবন আল্লাহর রাস্তায় নিজেকে বিলিয়ে দিতে চাই। আপনারা সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।

ব্রা,হ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলায় নওয়াব মিয়া (৬০) নামের এক ব্রা,জিল সমর্থককে পেটালেন আর্জেন্টিনার সমর্থকরা। এ ঘটনার জে’রে তিন আর্জেন্টিনা সমর্থকে পিটিয়ে আহত করেছেন ব্রাজিলের সমর্থকরা।

আহতরা ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শ,য্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। মঙ্গলবার (৬ জুলাই) সন্ধ্যার দিকে উপ,জেলার সাদেকপুর ইউনিয়নের দামচাইল বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

ব্রা,হ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমরানুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নি,শ্চিত করে জানান, পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনাটি আমরা জানতে পেরেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

আহতরা ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে চি,কিৎসা নিয়েছেন। এ দিন সকালে কোপা আমেরিকার ব্রাজিল বনাম পেরুর মধ্যকার সেমিফাইনাল খেলায় ব্রাজিল ১-০ গোলে জয়ী হয়।

খেলা শেষে ব্রাজিল সমর্থক রে,জাউলের সাথে একই এলাকার আব্দুর র,উফ মিয়ার ছেলে আর্জেন্টিনার সমর্থক মো: জীবন মিয়ার কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে হাতাহাতি হয়। এ সময় স্থানীয়দের মধ্যস্থতায় তাদের হাতাহাতি থামানো হয়।

পরে বিকেলে নওয়াব মিয়াকে একা পেয়ে মো: জীবন মিয়াসহ আরো চার থেকে পাঁচজন আ,র্জেন্টিনা সমর্থক মিলে মারধর করে পালিয়ে যায়। আ,হত নওয়াব মিয়া সাদেকপুর ইউনিয়নের আলাকপুর গ্রামের মৃ,ত হেলু মিয়া ছেলে। সন্ধ্যার দিকে নওয়াব মিয়াকে ব্রা,হ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসে।