এবার আফগানিস্তান-ইরানের প্রধান সীমান্ত পথ তালেবানের দখলে

287

তালেবান বাহিনী আফগানিস্তান ও ইরানের প্রধান সীমান্ত পথ দখল করেছে বলে জানিয়েছে আফগান সরকারি কর্মকর্তারা। শুক্রবার এ তথ্য জানায় আফগান কর্তৃপক্ষ।

আফগানিস্তানের সরকারি বাহিনী জানিয়েছে, তালেবান বাহিনী আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলের একটি গুরুত্বপূর্ণ জেলা দখল করেছে। ওই জেলাটি আফগানিস্তান ও ইরানের প্রধান গুরুত্বপূর্ণ সীমান্ত পথ বলে পরিচিত।

তালেবানরা দ্রুত আফগানিস্তানের অন্যান্য অঞ্চল দখল করছে বলেও জানিয়েছে বিভিন্ন গণমাধ্যম। গত সপ্তাহে পাঁচটি সীমান্ত অঞ্চল দখল করেছে তালেবান যোদ্ধারা। এসব সীমান্ত অঞ্চল ইরান, তাজিকিস্তান, তুর্কমেনিস্তান, চীন ও পাকিস্তানের সাথে সংযুক্ত।

এ দিকে উজবেকিস্তান সীমান্তে অবস্থিত আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলের বালখ প্রদেশে তালেবান যোদ্ধাদের সাথে আফগানিস্তানের সরকারি বাহিনীর তুমুল লড়াই চলছে।

২০ বছর পর ন্যাটো ও মার্কিন সেনারা আফগানিস্তান থেকে চলে যাওয়ার ফলে দেশটি মারাত্মক নিরাপত্তা সঙ্কট দেখা দিয়েছে।

সূত্র : আল-জাজিরা

মধ্য এশিয়ার রাষ্ট্র উজবেকিস্তানে জনসমক্ষে হিজাব পরতে এখন থেকে আর কোনো বাধা রইল না। উজবেকিস্তানের প্রেসিডেন্ট শাভকাত মিরজিইয়োয়েভ ধর্মীয় স্বাধীনতার বিষয়ক জাতীয় আইনে পরিবর্তন এনেছেন। এর আগে শুধুমাত্র নেতা-মন্ত্রীরাই এই ধর্মীয় পোশাক পরে পথে-ঘাটে বের হতে পারতেন। তবে এখন সেই আইনে বদল বা সংশোধন আনা হয়েছে। যার ফলে, সাধারণ নারীরাও জনসমক্ষে হিজাব পরার অধিকার পেলেন।

নতুন আইন অনুযায়ী, যেকোনো ধর্মীয় সংগঠন সরকারি খাতায় তাদের নাম নিবন্ধন করতে পারবে এবং শুধুমাত্র আদালতের আদেশেই তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা সম্ভব হবে। একই সঙ্গে উজবেকিস্তানে বিশেষায়িত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বাইরে ধর্মীয় শিক্ষা কার্যক্রম চালানো হলে তাকে বেআইনি বলে বিবেচনা করবে প্রশাসন।

উল্লেখ্য, উজবেকিস্তানে ২,২০০-এরও বেশি ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের নাম নিবন্ধিত রয়েছে যেগুলোর মধ্যে ৯০ শতাংশই মুসলিম। দেশটিতে খ্রিস্টান প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ১৫৭, ইহুদি প্রতিষ্ঠান ৮টি, ৬টি রয়েছে বাহাইদের এবং একটি করে হিন্দু ও বৌদ্ধ প্রতিষ্ঠান রয়েছে।
সূত্র : পুবের কলম