গুলিস্তানে পাগল নাচলেও বিএনপির সমাবেশের চেয়ে বেশি মানুষ হয়

103

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘তারা (বিএনপি) প্রেস ক্লাবের সামনে সমাবেশ করেছে। সেখানকার জনসমাগম দেখে সরকার নাকি ভয় পেয়েছে, মাথা খারাপ হয়েছে। আসলে গুলিস্তানের পাগল নাচলেও তাদের সমাবেশের চেয়ে বেশি মানুষ হয়।

সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) ‘১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি বিএনপির ভোটারবিহীন প্রহসনের নির্বাচনের’ নিন্দা ও প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এ আহ্বান জানান। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ এ সমাবেশের আয়োজন করে।

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে দেশ ভালো থাকায় তাদের (বিএনপি) মাথা খারাপ হয়ে গেছে। তারা জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে ভেতরে ভেতরে ষড়যন্ত্র করছে। আল জাজিরার রিপোর্ট ষড়যন্ত্রের অংশ।

তিনি বলেন, ‘এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আল জাজিরার বিশ্বাসযোগ্যতা লোপ পেয়েছে। তারা জনধিকৃত হয়েছে। তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে তখনই হ’ত্যা করেছিল, যখন খুনিরা জনবিচ্ছিন্ন হয়েছিল। আজকেও তারা সেই খেলায় মেতেছে।

দেশ-বিদেশে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানাচ্ছি। দেশ-বিদেশে ষড়যন্ত্র হচ্ছে জানিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ দলের নেতাকর্মীদের সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

বিএনপির সমালোচনা করে হাছান মাহমুদ বলেন, যাদের জন্ম ক্যান্টনমেন্টের ভেতরে, তারা আবার গণতন্ত্রের কথা বলে। বিএনপির যারা এখন কথা বলে, সব দলছুট নেতা। জিয়াউর রহমানের বিলিয়ে দেয়া ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট ভোগ করতে বিএনপিতে এসেছে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘করোনার টিকা নিয়ে বিভিন্ন সময়ে নানান কথা বলেছে বিএনপি। এখন তারা সেই টিকাও নিচ্ছে। তাদের সাধুবাদ জানাই। বিরোধী দল সুস্থ সবল থাকুক আমরাও চাই। আমাদের বিরোধিতা করুক, আমরা সুন্দরভাবে সরকার পরিচালনা করি।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফীর সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী, জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি, বাহাউদ্দিন নাছিম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির প্রমুখ।