এবার ভুয়া বিবৃতি দিয়ে ধরা সেনাপ্রধান!

1965

শেখ হাসিনার সরকারের সুনাম বাড়াতে তার পুত্র সজিব ওয়াজেদ জয় থেকে শুরু করে দলের নেতাকর্মীরা ভুয়া জরিপ থেকে ‍শুরু করে ভুয়া বিবৃতি, ভুয়া নিউজ পোর্টাল দিয়ে মিথ্যা খবর প্রকাশ করা নতুন কিছু নয়। তবে এবার জাতিসংঘের আন্ডার সেক্রেটারির বরাতে ভুয়া বিবৃতি দিয়ে চরমভাবে ধরা খেয়েছে সেনাপ্রধান আজিজ আহমেদ।

গত ১০ ফেব্রুয়ারি আইএসপিআর তথা সেনাবাহিনী থেকে গণমাধ্যমে একটি বিবৃতি পাঠানো হয়। দেশের সব গণমাধ্যম এই বিবৃতিটি প্রকাশ করেছে। বিবৃতির বিষয় ছিল সেনাপ্রধান আজিজ আহমেদ যুক্তরাষ্ট্র সফরের সময় জাতিসংঘের উর্ধ্বতন কর্মতাদের সাথে একটি বৈঠক করেছেন।

সেনাবাহিনীর পাঠানো বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে, জাতিসংঘের অপারেশনাল সাপোর্ট বিভাগের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল অতুল খারে বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়ন ও মানবাধিকার রক্ষায় শেখ হাসিনার ভুয়শী প্রশংসা করেছেন। শেখ হাসিনাকে তিনি ধন্যবাদও দিয়েছেন।

এই সংবাদ বাংলাদেশের গণমাধ্যমে প্রকাশের পরই যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী কাওসার মোমিন নামে এক সাংবাদিক বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য জাতিসংঘের ওই আন্ডার সেক্রেটারির দপ্তরে জানতে যান। জাতিসংঘের ওই দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে-কোনো অবদানের জন্য শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ দিয়ে তারা কোনো বক্তব্য দেননি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সেনাবাহিনীর এমন প্রতারণামূলক বিবৃতি দেখে জাতিসংঘের কর্মকর্তারা প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ হয়েছেন। বিষয়টি তারা জাতিসংঘে কর্মরত বাংলাদেশি কর্মকর্তাদেরকে জানিয়েছে।

এরপর বিষয়টি সরকারের উচ্চমহলক অবহিত করানো হয়। সরকারের উচ্চমহল বিষয়টি জানার পরই সেনাবাহিনীর উপর প্রচণ্ড ক্ষোভ প্রকাশ করে। এবং গণমাধ্যমে আরেকটি বিবৃতি দিয়ে আগের বিবৃতিটি প্রত্যাহার করার জন্য সেনাবাহিনীকে নির্দেশ দেয়া হয়। জানা গেছে, এরপরই ১০ ফেব্রুয়ারি আবার গণমাধ্যমে বিবৃতি দিয়ে আগের ভুয়া বিবৃতি প্রত্যাহারের আহ্বান জানায় সেনাবাহিনী। এনিয়ে এখন সেনাবাহিনীর মধ্যে প্রচন্ড অসুন্তোষ দেখা দিয়েছে।