নাসির জামায়াত নেতা, অন্যের বউ চুরি করা তাদের কাজ। হাসান মাহমুদ

2016

জাতীয় দলের অলরাউন্ডার নাসির হোসেনের বিয়ের খবরে উচ্ছ্বসিত তার ভক্তরা। অনেকটা বাউন্ডেলে নাসির বিয়ে করে এবার থিতু হবেন এমন আশায় বুক বেধেছিলেন ক্রীড়ামোদিরা। বিয়ের সপ্তাহ না যেতেই বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছেন নাসির ও তার ভক্তরা।

ভ্যালেন্টাইনস ডেতে কেবিন ক্রু তামিমা তাম্মিকে বিয়ে করেন নাসির। তাদের জমকালো বিয়ের অনুষ্ঠানে ছবি উষ্ণতা ছড়িয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ফেসবুক ব্যবহারকারীরা দুজনকে নিয়ে মেতে ছিলেন কয়েকদিন।

কিন্তু এক সপ্তাহ পূর্ণ না হতেই জানা গেল নাসিরপত্নীর আগে আরেকটি বিয়ে হয়েছিল। তামিমার সাবেক স্বা’মী রাকিব হাসান। তার দাবি, তামিমা তাকে ডিভোর্স না দিয়েই নাসিরকে বিয়ে করেছেন।শনিবার তামিমার প্রথম স্বা’মী রাকিব হাসান দাবি করেন, তামিমার স’ঙ্গে তার বিয়ে বিচ্ছেদ হয়নি। ছাড়াছাড়ি না করেই গাঁটছড়া বেঁ’ধেছেন তামিমা।

এ বি’ষয়ে তামিমাকে ফোন করে কোনো সাড়া না পেয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় সাধারণ ডায়েরি (জি’ডি) করেছেন রাকিব। উত্তরা পশ্চিম থানার ওসি শাহ মো. আক্তারুজ্জামান ইলিয়াস জি’ডির বি’ষয়টি নিশ্চিত করেছেন।গণমাধ্যমের কাছে তাদের কাবিননামা ও জি’ডির কপি পাঠিয়েছেন তামিমার প্রথম স্বা’মী।

তার দাবি, তামিমার স’ঙ্গে ১১ বছরের দাম্পত্য জীবন কাটিয়েছেন তিনি। তাদের ঘরে ৮ বছর ব’য়সী মে’য়ে স’ন্তান রয়েছে।রাকিব হাসান আরও বলেন, ২০১১ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি তিন লাখ টাকা দেনমোহরে তামিমার স’ঙ্গে আমার বিয়ে হয়। বিয়ের পর অনেক বছর তামিমার পক্ষের কোনো আত্মীয়স্বজনের দেখা পাইনি।

বছরচারেক আগে আমার ভাইয়ের কাছ থেকে কয়েক লাখ টাকা ঋ’ণ নিয়ে তামিমাকে সৌদি এয়ারলাইন্সে চাকরি পাইয়ে দিই। এই চাকরি পাওয়ার পর থেকেই সে (তামিমা) বদলে যেতে থাকে।

বিমানে দেশে-বিদেশে ঘুরে বেড়ানোর কারণে তাকে কম কাছে পেতে থাকি। ইতোমধ্যে আমাদের মে’য়ের দেখভালের জন্য তার মাকে আমাদের বাসায় নিয়ে আসি। এতে উপকারের বদলে অপকারই হয়।ঝ’গড়া এড়াতে আমি গত এক বছর ধরে একা অন্য একটা বাসায় ভাড়া থাকছি। ইতোমধ্যে ১৫ ফেব্রুয়ারি সকালে ফেসবুক আর গণমাধ্যমে দেখি আমার স্ত্রী বধূবেশে ক্রিকেটার নাসিরের পাশে।

আপ্লুতকণ্ঠে রাকিব হাসান আরও বলেন, নাসিরের ফেসবুকে পোস্ট করা সেই বিয়ের ভিডিও আমার মে’য়ে দেখে অঝোরে কাঁদছে। আমাকে কোনো নোটিশ না দিয়ে, কোনো কাগজপত্র না পাঠিয়ে কেন এভাবে অন্যের স্ত্রী হতে চলে গেল তামিমা? আমি বুঝতে পারছি না। এখনো আমাদের ডিভোর্স হয়নি। আমার অবুঝ মে’য়ে কী দোষ করেছে? যে এখন মায়ের দ্বিতীয় বিয়ের ভিডিও দেখে কাঁদছে?- এমন প্রশ্নও রাখেন তামিমার প্রথম স্বা’মী।

নাসির হোসেনের স’ঙ্গে কবে কীভাবে তামিমার যোগাযোগ হলো, সে বি’ষয়ে কিছু জানতেন কি না- এ প্রশ্নের জবাবে রাকিব বলেন, বছরখানেক আগে আমি তামিমার ইনস্টাগ্রামে নাসির হোসেনের স’ঙ্গে তার ছবি দেখেছিলাম। এমন একটি ছবি নাসিরও ফেসবুকে দিয়েছিল। তখন তামিমা বলেছিল, নাসির হোসেন তার বন্ধু।

১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে রাজধানীর উত্তরার এক রেস্তোরাঁয় বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সারেন নাসির। ১৭ ফেব্রুয়ারি ছিল এ যুগলের গায়েহলুদ। এর একদিন পর জাঁকজমকপূর্ণভাবে হয় তাঁদের বিবাহোত্তর সংবর্ধ’না। সেই আ’নন্দের রেশে তাল কাটেন তামিমার প্রথম স্বা’মী রাকিব।

এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে নাসির ও রাকিবের কথোপকথনের অডিও ক্লিপ। ওই কথোপকথনে তামিমার প্রথম বিয়ের সত্যতা মেলে। নাসিরও স্বীকার করেন, সবকিছু জেনেই তামিমাকে বিয়ে করেছেন তিনি।এ বি’ষয়ে জানতে ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তার স্ত্রী তামিমা সুলতানার স’ঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে তাদের পাওয়া যায়নি।