ইনশাল্লাহ সমাবেশে থেকেই সরকার পতনের আন্দোলন পাকাপোক্ত হবে: দাবি ইশরাক

1668

বিএনপির আন্তর্জাতিকবিষয়ক কমিটির অন্যতম সদস্য প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন বলেছেন, আম’রা গণতন্ত্র পুনরাদ্ধের আ’ন্দোলনে আছি। আমাদেরকে কোনো বাধা-ই আ’ট’কাতে পারবে না।

আজ বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে বরিশাল মহানগরীতে এক বি’ক্ষোভ সমাবেশে প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন একথা বলেন।

ইশরাক হোসেন বলেছেন, আজকে সমাবেশে আসার জন্য ঢাকা থেকে রওনা দেওয়ার পর মা’ওয়া ঘাটে সরকার নির্লজ্জভাবে, ন্যাক্কারজনকভাবে ফেরি বন্ধ করে দেয়। কর্তৃপক্ষ অফিস বন্ধ করেই চলে যায়। আমাদের প্রায় ২৫টি গাড়ি এখনো সেখানে রয়ে গেছে।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে ইশরাক হোসেন আরও বলেন, আপনারা যেভাবে মাঠে আছেন, গত ১৩ বছর ধরে অ’ত্যাচার,নি’র্যাতন, মা’মলা হা’মলার শিকার হয়ে যেভাবে মাঠে আছেন, আপনাদেরকে দেখে আমি আরো উজ্জীবিত হলাম। আপনারা আগামী আ’ন্দোলন সংগ্রামের জন্য প্রস্তুতি নিন। ইনশাল্লাহ বরিশাল থেকেই সরকার পতনের আ’ন্দোলন পাকাপোক্ত হবে।

বরিশাল মহানগরের সাবেক মেয়র মজিবুর সারোয়ারের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন বিএনপির চেয়ারপারসনেরউপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, বিএনপি নেতা আবুল হোসেন খান, ওবায়দুল আকরাম, আলমগীর হোসেন প্রমুখ।ভাষা ও শহিদ দিবসে প্রথমবারের মতো মাতৃভাষা পদক দিয়েছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট। মাতৃভাষা সংরক্ষণ, চর্চা ও প্রচার-প্রসারে অবদান রাখায় জাতীয় অধ্যাপক মোহাম্মদ রফিকুল ইসলামসহ তিন ব্যক্তি ও এক প্রতিষ্ঠানকেnull

এই পদক দেওয়া হয়। আজ রোববার (২১ ফেব্রুয়ারি) আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে পদক তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

এসময় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০২১ এর উদ্বোধন এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা পদক ২০২১ প্রদান
অনুষ্ঠানে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। করোনার কারণে নিজের শিক্ষক রফিকুল ইসলামের হাতে সরাসরি পদক তুলে দিতে না পারায় দুঃখপ্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বিশেষ করে যখন আমার শ্রদ্ধেয় শিক্ষক রফিকুল ইসলাম স্যারের হাতে পদক তুলে দেওয়া, এটা আমার জন্য কত সম্মানের এবং গৌরবের।

কিন্তু আমার দুঃখ এখানে নিজের হাতে দিতে পারলাম না। স্যার আপনি আমাকে ক্ষমা করবেন। জাতীয় পর্যায়ে পুরস্কার পেয়েছেন বিশিষ্ট ভাষাবিজ্ঞানী, নজরুল গবেষক, লেখক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম ও খাগড়াছড়ির জাবারাং কল্যাণ সমিতির নির্বাহী পরিচালক মথুরা বিকাশ ত্রিপুরা।

পদকপ্রাপ্তদের অভিনন্দন জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, অভিনন্দন জানাই আপনাকে। একই সঙ্গে আরও যারা পুরস্কারটা পেয়েছেন যেমন মথুরা বিকাশ ত্রিপুরা আমাদের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ওপর গবেষণা করেছেন। তাকে আমি ধন্যবাদ জানাই। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে উজবেকিস্তান, বলিভিয়ার পেয়েছেন তাদেরও আন্তরিক অভিনন্দন জানাচ্ছি।