মিছিলের সামনে পুলিশের সন্তানদের নেব, দেখি লাঠি তাদের গায়ে পড়ে কিনা: এমপি হারুন

823

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হারুন অর রশিদ বলেন, আমি রাজশাহীর মাটিতে পরিষ্কারভাবে পুলিশ ভাইদের বলে দিতে চাই- আগামী ৩০ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়-কলেজ খুলবে। প্রস্তুত হোন। পুলিশের ছেলে যারা, যারা বিশ্ববিদ্যালয়-কলেজে পড়ালেখা করে। তাদেরকে মিছিলের সামনে আমরা নেব। দেখি পুলিশের লাঠি তাদের গায়ে পড়ে কিনা।
মঙ্গলবার বিকালে রাজশাহী মহানগরীর মাদ্রাসা ময়দান সংলগ্ন একটি কমিউনিটি সেন্টারের পাশে বিভাগীয় সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

হারুন অর রশিদ বলেন, পুলিশ ভাইদের উদ্দেশে বলছি- আপনারা এ দেশের সন্তান। আইন, সংবিধান অনুযায়ী আপনারা চলবেন। পুলিশ কমিশনার, আইন আপনাকে দিয়েছে? কোন আইনে আপনি রাজশাহীর এই সমাবেশের অধিকার থেকে বঞ্চিত করেছেন?

তিনি বলেন, আজকে আমি পুলিশ প্রশাসনের কাছে, পুলিশ কমিশনারের কাছে জানতে চাই কেন আপনারা এখানে ফায়ার ব্রিগেডের গাড়ি মোতায়েন রেখেছেন। কেন র্যা বের পোশাক পড়ে অস্ত্র হাতে সমাবেশে আশপাশে অবস্থান নিয়েছেন? আমি যখন গাড়ি থেকে নামলাম দেখলাম অস্ত্র নিয়ে জনগণের দিকে তাক করে আছে। এই অস্ত্র আপনাদের কেন দেওয়া হয়েছে? আপনারা ভারতীয় সীমান্তে যান, সেখানে পাখির মতো গুলি করে মানুষকে হত্যা করা হচ্ছে। সেখানে মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন।

বিএনপির এই যুগ্ম মহাসচিব বলেন, আজকের এই সমাবেশ হচ্ছে লুটেরাদের উৎখাত করার সমাবেশ। আজকের এই সমাবেশ হচ্ছে মাফিয়াদের বিতাড়িত করার সমাবেশ। আজকের সমাবেশ দেশে ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনার সমাবেশ।

তিনি বলেন, আজকের সমাবেশে প্রধান অতিথি সাবেক মন্ত্রী ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু যিনি মুক্তিযুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছেন তাকে আসতে বাধা দেওয়া হয়েছে। ছয় সিটির জনতার মেয়রদের রাজশাহী আসতে বাধা দেওয়া হয়েছে। এসব করে পার পাবেন না।

হারুন-অর রশিদ বলেছেন, আমি পার্লামেন্টে যোগদান করেছি। আমি সাংবাদিক বন্ধুদের উদ্দেশে আজকে বলতে চাই, জাতির উদ্দেশে বলে দিতে চাই, যে মুহূর্তে তারেক রহমান বলবেন, এই অবৈধ সংসদ থেকে পদত্যাগ করে বেরিয়ে আসব। আপনারা শুধু প্রস্তুত হোন যুদ্ধের জন্য। লাঠি লাগে, অস্ত্র লাগে, যা কিছু লাগে তাই নিয়ে আমরা প্রস্তুত হব, ইনশাআল্লাহ। মানুষ আগুন হয়ে আছে।